Thursday, 29 October 2015

নিজেই বানিয়ে ফেলুন একটি স্পীকার



সকাল থেকেই পরিবেশ টা কেমন থমথমে হয়ে আছে।মাইকের চিৎকার বক্সের গর্জন আর পাচ্ছি না।সময় দৈত্য মাথ্য চাঁটি মেরে বলছে,অভিজিৎ পূজা শেষ,কলেজ শুরু হবে তোর মেসে যাবার সময় এসেছে।বাড়ির আরাম ছেড়ে যেতে হবে,সকাল থেকেই মন টা খারাপ।কোনো কাজেই মন বসছে না।
দুটো রিং চুম্বক হাতে নিয়ে ঘাঁটছিলাম। তখনি মাথায় এলো কিছু একটা বানাই এটা দিয়ে,মন টা অন্তত ভালো হবে।
এই স্পীকার টা বানিয়ে ফেললাম,যদিও দেখতে মোটেও স্পীকারের মতো লাগছে না। হাতের কাছে যা ছিলো তাই দিয়ে বানিয়েছি ঘন্টা খানেকের মধ্যে।
স্পীকার বানাতে হলে আগে জানতে হবে স্পীকার কী ভাবে কাজ করে।

আমরা জানি কোনো চুম্বক ক্ষেত্রের মধ্যে কোনো পরিবাহি তার কে আনলে ওই তার একপ্রকার বল অনুভব করে, এটা আকর্শন হতে পারে এবং বিকর্ষন হতে পারে। স্পীকারে একটি চুম্বক ক্ষেত্রের ভিতর একটি পরিবাহী তারের কুন্ডলী থাকে, ওই কুন্ডলীর ভিতর দিয়ে যদি অল্টারলেটিং কারেন্ট পাঠানো হয় তা হলে সাপ্লাই এর ফ্রীকুয়েন্সীতে কয়েল টা কাঁপতে থাকে।এখন ওই কম্পনশীল কয়েল এর সঙ্গে যদি একটা পর্দা লাগানো হয়, তা হলে পরবশ কম্পনের সৃষ্টি হয়, ফলে একটা জোরালো শ্রবন যোগ্য শব্দের সৃষ্টি হয়।



এখন ছবি গুলো দেখে একটা ভালো ধারনা পাওয়া যাবে মনে হয়।


কয়েকটি কথা
১।কয়েলে সরু তার ব্যবহার করবেন, অনেক পাক দেবেন এতে ইন্ডাক্টেন্স বাড়বে ফলে এম্পলিফায়ার এর উপর চাপ কম পড়বে।
২।কম রেজিস্ট্যান্স ও কম ইন্ডাক্ট্যান্স দিয়ে বানালে বেশী সময় এম্পিফায়ের এর সাথে চালাবেন না , এম্পলিফায়ার খারাপ হতে পারে।
৩।বাজারে কেনা স্পীকারের মতো সাউন্ড আশা করবেন না, এটা শখে বানানো।
৪। পর্দা বড় ব্যবহার করবেন, বেশী শব্দ পাবেন।


আরো আগ্রহী হলে চলে এসো এই লিঙ্কে www.abhieeeprojects.blogspot.com